ঢাকা, রবিবার, ১৯ আগস্ট ২০১৮, ৪ ভাদ্র ১৪২৫
---
Tattho
প্রথম পাতা » ইসলাম » পারিবারিক সম্পত্তির ভাগ বণ্টনে মুসলিম উত্তরাধিকার আইন
রবিবার ● ১ মে ২০১৬, ৪ ভাদ্র ১৪২৫
Email this News Print Friendly Version

পারিবারিক সম্পত্তির ভাগ বণ্টনে মুসলিম উত্তরাধিকার আইন

বিশ্বনবী হযরত মুহম্মদ (সা.) আজ থেকে ১৪শ’ বছর আগেই বলে গিয়েছেন, ”উত্তরাধিকার আইন নিজে জানো ও অপরকে শেখাও, সকল জ্ঞানের অর্ধেক হল এই জ্ঞান।” মুসলিম হাওয়া সত্ত্বেও আমাদের অনেকেরই উত্তরাধিকার আইন সম্পর্কে তেমন ধারণা নেই।
---
কিন্তু এটা প্রত্যেক মুসলিমের জানা প্রয়োজন। মুসলিম আইনে কুরআন, সুন্নাহ ও ইজমার ওপর ভিত্তি করে মৃত ব্যক্তির রেখে যাওয়া সম্পত্তি তার উত্তরাধিকারীদের মধ্যে বণ্টন করা হয়ে থাকে। এভাবে বণ্টন করাকে ফারায়েজ বলা হয়।

এই সম্পর্কে পবিত্র কুরআনের সূরা নিসাতে জোর দিয়ে বলা হয়েছে। তাই এই বিষয়ে জানা উচিত। এতে কোন মুসলমান পুরুষ বা নারী উত্তরাধিকার আইন অনুযায়ী তার ভাগে কতটুকু সম্পত্তি পাবেন সেই সম্পর্কে জানতে পারবে। এখানে শুধু আমরা স্বামী-স্ত্রী, পিতা-মাতা ও পুত্র-কন্যার উত্তরাধিকার আইন অনুযায়ী প্রাপ্য অংশ নিয়ে আলোচনা করব।

তবে কোন মুসলমান মারা গেলে তার সম্পত্তি বণ্টনের আগে কিছু আনুষ্ঠানিকতা পালন করতে হয়। চলুন আগে জেনে নেই কী সেই সব আনুষ্ঠানিকতা।

১. মৃত ব্যক্তির পর্যাপ্ত সম্পত্তি থাকলে সেখান থেকে তার দাফন কাফনের যাবতীয় খরচ মেটাতে হবে।

২. তিনি যদি জীবিত থাকা অবস্থায় কোন ধার-দেনা করে থাকেন তবে তাও রেখে যাওয়া সম্পত্তি থেকে পরিশোধ করে দিতে হবে।

৩. তার স্ত্রী বা স্ত্রীদের দেনমোহর পরিশোধিত না হয়ে থাকলে বা আংশিক অপরিশোধিত থাকলে তা পরিশোধ করে দিতে হবে। মোট কথা স্ত্রীর সম্পূর্ণ দেনমোহর স্বামী মৃত অথবা জীবিত যাই থাকুক না কেন তা স্বামীর সম্পত্তি থেকে আইন অনুযায়ী সম্পূর্ণ পরিশোধ করে দিতে হবে।

৪. মৃত ব্যক্তি কোন দান কিংবা উইল করে গেলে তা প্রাপককে দিয়ে দিতে হবে।

উপরের সব কাজ সম্পন্ন করার পরে মৃত ব্যক্তির অবশিষ্ট সম্পত্তি ফারায়েজ আইন অনুযায়ী তার উত্তরাধিকারীদের মধ্যে বণ্টন করে দিতে হবে। এবার জেনে নিই কি অনুপাতে বা কীভাবে এই সম্পত্তি বণ্টন হবে।

১. স্বামীর অংশ: স্বামী ২ ভাবে মৃত স্ত্রীর সম্পত্তির ভাগ পেয়ে থাকে। স্বামী কখনো তার মৃত স্ত্রীর সম্পত্তি থেকে বঞ্চিত হবে না। মৃত স্ত্রীর কোন সন্তান বা পুত্রের সন্তান থাকলে স্বামী স্ত্রীর সম্পত্তির ১/৪ অংশ পাবে। মৃত স্ত্রীর কোন সন্তান বা পুত্রের সন্তান কেউই না থাকলে স্বামী স্ত্রীর সম্পত্তির ১/২ অংশ পাবে।

২. স্ত্রীর অংশ: স্ত্রীও ২ ভাবে তার মৃত স্বামীর সম্পত্তি পেয়ে থাকে। বিধবা স্ত্রী কোন ভাবে তার স্বামীর সম্পত্তি থেকে বঞ্চিত হবে না। মৃত স্বামীর কোন সন্তান বা তাদের পুত্রের সন্তান থাকলে স্ত্রী, স্বামীর সম্পত্তির ১/৮ অংশ পাবে। যদি মৃত স্বামীর কোন সন্তান বা পুত্রের সন্তান কেউই না থাকলে তবে স্ত্রী, স্বামীর সম্পত্তির ১/৪ অংশ পাবে। স্ত্রী একাধিক হলেও সবাই মিলে ১/৪ অংশ সমান ভাগেই পাবে।

৩. বাবার অংশ: বাবা তার মৃত সন্তানের সম্পত্তির উত্তরাধিকারী ৩ ভাবে হয়ে থাকে। যদি মৃত সন্তানের পুত্র, পুত্রের পুত্র বা পুত্রের পুত্রের পুত্র এভাবে যতই নিচের হোক না কেন যদি থাকে, তবে মৃত সন্তানের পিতা পাবেন সন্তানের সম্পত্তির ১/৬ অংশ।

যদি মৃত সন্তানের শুধু মাত্র কন্যা সন্তান বা তার পুত্রের কন্যা সন্তান থাকলে তবে পিতা সন্তানের সম্পত্তির ১/৬ অংশ পাবেন।

এই ক্ষেত্রে কন্যাদের ও অন্যান্যদের দেয়ার পর অবশিষ্ট যে সম্পত্তি থাকবে তাও পিতা পাবেন। আর যদি মৃত সন্তানের কোন পুত্র-কন্যা বা পুত্রের সন্তান কিছুই না থাকে তাবে বাকী অংশীদারদের তাদের অংশ অনুযায়ী দেয়ার পর অবশিষ্ট যা থাকবে তার সবটুকুই বাবা পাবেন।

তবে মৃত ব্যক্তির কোন সন্তান ও বাবা কেউ না থাকলে তার সম্পত্তি তার জীবিত ভাই বা ভাইরা পাবে। আবার ভাই না থাকলে তার ভাইয়ের সন্তানরা পাবে।

৪. মায়ের অংশ: মা তার মৃত সন্তানের সম্পত্তি ৩ ভাবে পেয়ে থাকে।  - মৃত ব্যক্তির কোন সন্তান বা পুত্রের সন্তানাদি যত নিম্নেরই হোক থাকলে অথবা যদি মৃত ব্যক্তির আপন, পূর্ণ বৈমাত্রেয় বা বৈপিত্রেয় ভাইবোন থাকলে তবে মাতা ছয় ভাগের এক ভাগ (১/৬) পাবেন।

মৃত ব্যক্তির কোন সন্তান বা পুত্রের সন্তানাদি যত নিম্নের হোক না থাকলে এবং মৃত ব্যক্তির যদি একজনের বেশি ভাই বা বোন না থাকে তবে মাতা তিন ভাগের এক ভাগ (১/৩) পাবেন। কোন সন্তান বা পুত্রের সন্তানাদি যত নিম্নের হোক না থাকলে অথবা কমপক্ষে দুইজন ভাইবোন না থাকলে এবং যদি মৃত ব্যক্তির স্বামী বা স্ত্রীর অংশ বাদ দেয়ার পর যা অবশিষ্ট থাকবে, তার তিন ভাগের এক ভাগ (১/৩) মাতা পাবেন।  মৃত ব্যক্তির এক ভাই থাকলেও মাতা ১/৩ অংশ পাবেন।

৫. পুত্র সন্তানের অংশ: মৃত ব্যক্তির ছেলে বা ছেলেরা সকল ক্ষেত্রেই সম্পত্তি পায়।  যেক্ষেত্রে মৃত ব্যক্তির ছেলে ও মেয়ে রয়েছে সেই ক্ষেত্রে ছেলে বা ছেলেরা, মেয়ে বা মেয়েদের চেয়ে দ্বিগুন সম্পত্তি পাবে।  মৃত ব্যক্তির সম্পত্তিতে মাতাপিতা ও স্বামী-স্ত্রী নির্দিষ্ট সম্পত্তি পাওয়ার পর অবশিষ্ট সম্পত্তি ছেলে মেয়ের মধ্যে বন্টন করা হবে। তবে মেয়ে না থাকলে অংশীদারদের অংশ দেয়ার পর অবশিষ্টাংশভোগী হিসেবে বাকি সম্পূর্ণ সম্পত্তি ছেলে বা ছেলেরাই পাবে।

৬. কন্যা সন্তানের অংশ: উত্তরাধিকারের ক্ষেত্রে কন্যারা তিনভাবে মাতাপিতার সম্পত্তি পেতে পারে।  একমাত্র কন্যা হলে তিনি রেখে যাওয়া সম্পত্তির দুই ভাগের এক ভাগ বা (১/২) অংশ পাবে।  একাধিক মেয়ে হলে সবাই মিলে সমানভাগে তিন ভাগের দুই ভাগ বা (২/৩) অংশ পাবে।  যদি পুত্র থাকে তবে পুত্র ও কন্যার সম্পত্তির অনুপাত হবে ২:১ অর্থাৎ এক মেয়ে এক ছেলের অর্ধেক অংশ পাবে।  যাহোক কন্যা কখনো মাতাপিতার সম্পত্তি হতে বঞ্চিত হয় না।

পিতা মারা গেলে তিনি জীবিত থাকা অবস্থায় যে সম্পত্তি পেতেন তা তার মৃত্যুর পরও তার উত্তরাধিকারীরা পাবে।

১৯৬১ সালের আগে এই নিয়ম ছিল না।  পরে একটি আইন পাস করে এই নিয়ম চালু করা হয়।  কারণ এতিমরা যাতে সম্পত্তি থেকে বঞ্চিত না হয় সেই সম্পর্কেও ইসলামে নির্দেশ দেয়া আছে।  আবার মুসলিম উত্তরাধিকার আইনে কোন সন্তানকে ত্যাজ্য বলে ধরা হয় না।  ফলে সম্পত্তি থেকে তাকেও বঞ্চিত করা যায় না।  তবে কোন ব্যক্তি রেজিস্ট্রিকৃতভাবে সম্পত্তি দান বা হস্তান্তর করে গেলে এবং সন্তানকে বঞ্চিত করার লক্ষ্যে সন্তানের অংশ উল্লেখ না করে গেলে ঐ সন্তান আর সম্পত্তি পাবে না।  সৎ ছেলে-মেয়ে, সৎ বাবা বা সৎ মায়ের সম্পত্তি পায় না।

একই ভাবে সৎ বাবা বা সৎ মা, সৎ ছেলে-মেয়ের সম্পত্তি পায় না।  কেউ কাউকে হত্যা করলে হত্যাকারী তার সম্পত্তির উত্তরাধিকারী হয় না।  জীবিত থাকা অবস্থায় স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বিবাহ বিচ্ছেদ হলে কেউ কারো সম্পত্তি পাবে না। জারজ সন্তান তার মা ও মায়ের আত্নীয়দের থেকে সম্পত্তি সাধারণ নিয়ম অনুযায়ী পাবে (মুসলিম হানাফী আইন অনুসারে)।

মৃত ব্যক্তির কোন উত্তরাধিকার না থাকলে এবং তা তিনি জীবিতকালে কাউকে না দেয়ার ব্যবস্থা করে গেলে সরকার তার সম্পত্তির ওয়ারিশ হবে।  উত্তরাধিকার সম্পর্কে উপরোক্ত সাধারণ কয়েকটি বিষয় মনে রাখলে উত্তরাধিকারীদের মধ্যে সম্পত্তি বন্টনের জটিলতা দূর হবে।

লেখক: মো. জাহিদ হোসেন, আইন-অধিকার বিষয়ক লেখক ও গবেষক।
ইমেইল: zahidlawcu@gmail.com
or epshibd@gmail.com


যুদ্ধক্ষেত্রের চেয়েও ভয়াবহ অবস্থা ঢাকার : প্রাণনাশের শঙ্কায় অনেকে

দেশে সামান্য বৃষ্টি, তাপমাত্রা কমছেনা…


এ বিভাগের আরো খবর...

মিথ্যা মামলায় কাউকে অযথা হয়রানি করা যাবে না: প্রধান বিচারপতি মিথ্যা মামলায় কাউকে অযথা হয়রানি করা যাবে না: প্রধান বিচারপতি
বিজ্ঞ্যানে মুসলমানদের অবদান… বিজ্ঞ্যানে মুসলমানদের অবদান…
ভিখারির মেয়েকে ইউপি মেম্বারসহ ৫ জন মিলে ধর্ষণ ভিখারির মেয়েকে ইউপি মেম্বারসহ ৫ জন মিলে ধর্ষণ
চার ধরনের শারীরিক মিলন ইসলামে নিষিদ্ধ চার ধরনের শারীরিক মিলন ইসলামে নিষিদ্ধ
ঢাকা’র নামকরা গাইনী ডাক্তার এর নাম ঠিকানা ঢাকা’র নামকরা গাইনী ডাক্তার এর নাম ঠিকানা
ওজন কমাতে কার্যকরী উপায় ওজন কমাতে কার্যকরী উপায়
দীর্ঘ সময় চেয়ারে বসে কাজ করলে মারাত্বক স্বাস্থ্য ঝুকি হতে পারে দীর্ঘ সময় চেয়ারে বসে কাজ করলে মারাত্বক স্বাস্থ্য ঝুকি হতে পারে
গুপ্তধন দেয়ার কথা বলে ডেকে নিয়ে মা- মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগ গুপ্তধন দেয়ার কথা বলে ডেকে নিয়ে মা- মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগ
কলকাতা এয়ারপোর্ট নিয়ে, অভিজ্ঞতার আলোকে কিছু পরামর্শ…. কলকাতা এয়ারপোর্ট নিয়ে, অভিজ্ঞতার আলোকে কিছু পরামর্শ….
প্রাথমিক চিকিৎসা- কাটা অঙ্গ জোড়া লাগান… প্রাথমিক চিকিৎসা- কাটা অঙ্গ জোড়া লাগান…

সর্বাধিক পঠিত

মিথ্যা মামলায় কাউকে অযথা হয়রানি করা যাবে না: প্রধান বিচারপতি মিথ্যা মামলায় কাউকে অযথা হয়রানি করা যাবে না: প্রধান বিচারপতি
মিটফোর্ডে আট কোটি টাকার ভেজাল ও নকল ওষুধ জব্দ মিটফোর্ডে আট কোটি টাকার ভেজাল ও নকল ওষুধ জব্দ
বিজ্ঞ্যানে মুসলমানদের অবদান… বিজ্ঞ্যানে মুসলমানদের অবদান…
দুই মেয়ে ব্যারিস্টার, বাবা আর্মি অফিসার দুই মেয়ে ব্যারিস্টার, বাবা আর্মি অফিসার
ভিখারির মেয়েকে ইউপি মেম্বারসহ ৫ জন মিলে ধর্ষণ ভিখারির মেয়েকে ইউপি মেম্বারসহ ৫ জন মিলে ধর্ষণ
অভিনব কায়দায় প্রতারণা করে বিনিয়োগারীদের ১১ কোটি টাকা হাতিয়ে নিলো রহিম বাদশা অভিনব কায়দায় প্রতারণা করে বিনিয়োগারীদের ১১ কোটি টাকা হাতিয়ে নিলো রহিম বাদশা
হাতিরঝিল হবে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের ৫০তম থানা হাতিরঝিল হবে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের ৫০তম থানা
পপুলার ডায়াগনস্টিক সেন্টার গত ২ বছরের ডায়াগনস্টিক টেস্টের সব রিপোর্ট ভুল দিয়েছে পপুলার ডায়াগনস্টিক সেন্টার গত ২ বছরের ডায়াগনস্টিক টেস্টের সব রিপোর্ট ভুল দিয়েছে
চার ধরনের শারীরিক মিলন ইসলামে নিষিদ্ধ চার ধরনের শারীরিক মিলন ইসলামে নিষিদ্ধ
প্রায় তিন বছর পর দেশে ফিরছেন জাকির নায়েক! প্রায় তিন বছর পর দেশে ফিরছেন জাকির নায়েক!

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)
বেকারদের জন্য অনুপ্রেরনা…ফরিদপুর এর লিখন
বিশ্বের শীর্ষ ১৩ ‘ডিসিশন মেকার্স’ ক্যাটাগরিতে শেখ হাসিনা
টমেটো ধূমপানের ক্ষতি কমাবে
৩৪ বার কাটছাঁটের শিকার ‘কেয়া কুল’
ব্রেকআপের পরে ‘জাস্ট ফ্রেন্ড’ হওয়া সম্ভব না
প্রেমে পড়লে শরীরে যে ছয়টি মজার পরিবর্তন ঘটে