ঢাকা, রবিবার, ১৯ আগস্ট ২০১৮, ৪ ভাদ্র ১৪২৫
---
Tattho
প্রথম পাতা » জাতীয় » পপুলার ডায়াগনস্টিক সেন্টার গত ২ বছরের ডায়াগনস্টিক টেস্টের সব রিপোর্ট ভুল দিয়েছে
বৃহস্পতিবার ● ৫ জুলাই ২০১৮, ৪ ভাদ্র ১৪২৫
Email this News Print Friendly Version

পপুলার ডায়াগনস্টিক সেন্টার গত ২ বছরের ডায়াগনস্টিক টেস্টের সব রিপোর্ট ভুল দিয়েছে

পপুলার ডায়াগনস্টিক সেন্টার গত ২ বছরের ডায়াগনস্টিক টেস্টের সব রিপোর্ট ভুল দিয়েছে
---
‘ধানমন্ডি-২ নম্বর রোডের পপুলার ডায়াগনস্টিক সেন্টারে গত ২ বছর আগে (অর্থাৎ ২০১৫ সালে) মেয়াদোত্তীর্ণ রি-এজেন্ট (ডায়াগনস্টিক টেস্টে রোগ নির্ণয়ের জন্য ব্যবহৃত রাসায়নিক উপাদান) জব্দ করা হয়েছে। এগুলো ব্যবহার করায় টেস্টের যে রিপোর্ট এসেছে সেটা ভুল হওয়ার সম্ভাবনা বেশি।’

স্বাস্থ্য অধিদফতরের মেডিকেল অফিসার ড. দেওয়ান মো. মেহেদী হাসান সাংবাদিকদের একথা বলেন। এর আগে সোমবার র‌্যাবের অভিযানে ধানমন্ডি-২ এর পপুলার ডায়াগনস্টিক সেন্টার মেয়াদোত্তীর্ণ রি-এজেন্ট ব্যবহার, মেয়াদোত্তীর্ণের তারিখ পরিবর্তন করে ঢাকার বাইরের জেলাগুলোর শাখায় পাঠানো এবং ভোক্তাদের সঙ্গে প্রতারণার অভিযোগে ২৫ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।

অভিযানে নেতৃত্ব দেন র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলম। এছাড়াও অভিযানে র‌্যাব-২ এর অর্ধশতাধিক সদস্য, স্বাস্থ্য অধিদফতর ও ওষুধ প্রশাসনের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

মেহেদী হাসান বলেন, যে কোনো চিকিৎসার শুরুতে চিকিৎসকরা ডায়াগনস্টিক টেস্ট করতে দেয়। এই টেস্টের রিপোর্ট দেখে তারা ওষুধপত্র দেয়, চিকিৎসা শুরু করে। যদি রিপোর্ট ভুল আসে তাহলে রোগী সঠিক চিকিৎসা পাবে না।

তিনি আরও বলেন, অভিযানে দীর্ঘদিন আগে মেয়াদ শেষ হওয়া রি-এজেন্ট পেয়েছি। এগুলো দিয়ে ডায়াগনস্টিক টেস্ট করা একটি বড় সমস্যা হল এসব রিপোর্টে ভুল হওয়ার সম্ভাবনা বেশি।

কেন রোগীদের সঙ্গে প্রতারণা? জানতে চাইলে পপুলার ডায়াগনস্টিক সেন্টারের হিউম্যান রিসোর্সেস অ্যান্ড অ্যাডমিনিস্ট্রেশন বিভাগের ম্যানেজার অচিন্ত কুমার নাগ জাগো নিউজকে বলেন, পপুলার দীর্ঘসময় ধরে দেশবাসীকে চিকিৎসা সেবা দিচ্ছে। তাদের সঙ্গে প্রতারণা করার কোনো ইচ্ছা আমাদের নেই। তবে সমস্যা হচ্ছে যে যাদের দায়িত্ব ছিল এ বিষয়ে আমাদের অবগত করা (ল্যাব ইনচার্জ), তারা সঠিকভাবে দায়িত্ব পালন করেনি। যারা আমাদের এসব বিষয়ে অবগত না করে দায়িত্বকে অবজ্ঞা করেছে, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সরেজমিন অভিযানে দেখা যায়, তাদের ব্যবহৃত সিমটেক্স গ্রুপের স্যাম্পল প্লেটের রি-এজেন্টটি ২০১৭ সালের জুন মাসে, সিমেন্স গ্রুপের স্ট্যান্ডার্ড হিউম্যান প্লাজমার মেয়াদ ২০১৭ সালের সেপ্টেম্বরে এবং ক্যাপিলারিস ইমিউনোটাইপিংয়ের মেয়াদ ২০১৭ সালের জুনে শেষ হয়।

অভিযান শেষে সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলম বলেন, আমাদের কাছে ময়মনসিংহ থেকে একটা অভিযোগ ছিল যে, সেখানকার পপুলারে ঢাকার মেয়াদোত্তীর্ণ রি-এজেন্ট পাঠানো হতো। বাক্সের গায়ের ২০১৬ সালের মেয়াদোত্তীর্ণের তারিখ বদলে তারা নতুন করে ২০১৮ সাল লিখতো। এখানে অভিযানে এসে আমরা মারাত্মক ত্রুটি খুঁজে পাই। তাদের ল্যাবের মেশিনের ভেতরে, স্টোর রুমে বিপুল পরিমাণে রি-এজেন্ট পাই। এদের কোনটির মেয়াদ ২০১৬ সালে কোনটির ২০১৭ সালে শেষ হয়েছে। রি-এজেন্ট মেয়াদোত্তীর্ণ হলে টেস্টে সঠিক রিপোর্ট নাও আসতে পারে। ভুল রিপোর্টের কারণে ভুল চিকিৎসা হতে পারে। তারা ভোক্তার সঙ্গে প্রতারণা করছে। এ কারণে তাদের ২৫ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।


চার ধরনের শারীরিক মিলন ইসলামে নিষিদ্ধ

হাতিরঝিল হবে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের ৫০তম থানা


এ বিভাগের আরো খবর...

পপুলার ডায়াগনস্টিক সেন্টার গত ২ বছরের ডায়াগনস্টিক টেস্টের সব রিপোর্ট ভুল দিয়েছে পপুলার ডায়াগনস্টিক সেন্টার গত ২ বছরের ডায়াগনস্টিক টেস্টের সব রিপোর্ট ভুল দিয়েছে
জামানত ছাড়া ১০ লাখ টাকার বেশি ঋণ পাবে নতুন উদ্যোক্তা! জামানত ছাড়া ১০ লাখ টাকার বেশি ঋণ পাবে নতুন উদ্যোক্তা!
ফরিদপুরের সালথা উপজেলা পরিষদের চেয়রম্যান বরখাস্ত ফরিদপুরের সালথা উপজেলা পরিষদের চেয়রম্যান বরখাস্ত
সংসদ উপনেতা সৈয়দা সাজেদা চৌধুরীর জন্মদিন পালিত সংসদ উপনেতা সৈয়দা সাজেদা চৌধুরীর জন্মদিন পালিত
রিজার্ভ চুরিতে বাংলাদেশ ব্যাংকের ৬ কর্মকর্তা জড়িত… ফরাসউদ্দিনের চূড়ান্ত প্রতিবেদন রিজার্ভ চুরিতে বাংলাদেশ ব্যাংকের ৬ কর্মকর্তা জড়িত… ফরাসউদ্দিনের চূড়ান্ত প্রতিবেদন
বাংলাদেশে ফেক আইডি বন্ধ করা শুরু করেছে ফেসবুক!! বাংলাদেশে ফেক আইডি বন্ধ করা শুরু করেছে ফেসবুক!!
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশ্বরেকর্ড…. প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশ্বরেকর্ড….
ধর্ষণের পর পিল খাওয়ার জন্য ভিকটিম ছাত্রীকে ১০০ টাকা দেয় ধর্ষক পরিমল। ধর্ষণের পর পিল খাওয়ার জন্য ভিকটিম ছাত্রীকে ১০০ টাকা দেয় ধর্ষক পরিমল।
ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন আয়তনে দ্বিগুণ হচ্ছে ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন আয়তনে দ্বিগুণ হচ্ছে
সদরপুরে ইউপি নির্বাচনে বিজয়ী হলেন যারা সদরপুরে ইউপি নির্বাচনে বিজয়ী হলেন যারা

সর্বাধিক পঠিত

মিথ্যা মামলায় কাউকে অযথা হয়রানি করা যাবে না: প্রধান বিচারপতি মিথ্যা মামলায় কাউকে অযথা হয়রানি করা যাবে না: প্রধান বিচারপতি
মিটফোর্ডে আট কোটি টাকার ভেজাল ও নকল ওষুধ জব্দ মিটফোর্ডে আট কোটি টাকার ভেজাল ও নকল ওষুধ জব্দ
বিজ্ঞ্যানে মুসলমানদের অবদান… বিজ্ঞ্যানে মুসলমানদের অবদান…
দুই মেয়ে ব্যারিস্টার, বাবা আর্মি অফিসার দুই মেয়ে ব্যারিস্টার, বাবা আর্মি অফিসার
ভিখারির মেয়েকে ইউপি মেম্বারসহ ৫ জন মিলে ধর্ষণ ভিখারির মেয়েকে ইউপি মেম্বারসহ ৫ জন মিলে ধর্ষণ
অভিনব কায়দায় প্রতারণা করে বিনিয়োগারীদের ১১ কোটি টাকা হাতিয়ে নিলো রহিম বাদশা অভিনব কায়দায় প্রতারণা করে বিনিয়োগারীদের ১১ কোটি টাকা হাতিয়ে নিলো রহিম বাদশা
হাতিরঝিল হবে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের ৫০তম থানা হাতিরঝিল হবে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের ৫০তম থানা
পপুলার ডায়াগনস্টিক সেন্টার গত ২ বছরের ডায়াগনস্টিক টেস্টের সব রিপোর্ট ভুল দিয়েছে পপুলার ডায়াগনস্টিক সেন্টার গত ২ বছরের ডায়াগনস্টিক টেস্টের সব রিপোর্ট ভুল দিয়েছে
চার ধরনের শারীরিক মিলন ইসলামে নিষিদ্ধ চার ধরনের শারীরিক মিলন ইসলামে নিষিদ্ধ
প্রায় তিন বছর পর দেশে ফিরছেন জাকির নায়েক! প্রায় তিন বছর পর দেশে ফিরছেন জাকির নায়েক!

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)
বেকারদের জন্য অনুপ্রেরনা…ফরিদপুর এর লিখন
বিশ্বের শীর্ষ ১৩ ‘ডিসিশন মেকার্স’ ক্যাটাগরিতে শেখ হাসিনা
টমেটো ধূমপানের ক্ষতি কমাবে
৩৪ বার কাটছাঁটের শিকার ‘কেয়া কুল’
ব্রেকআপের পরে ‘জাস্ট ফ্রেন্ড’ হওয়া সম্ভব না
প্রেমে পড়লে শরীরে যে ছয়টি মজার পরিবর্তন ঘটে